শুক্রবার, ২৫ জুন ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ১১ মে, ২০২১, ০৭:২০:২৩

প্রিয়জনকে জড়িয়ে ধরার উপকারিতা

প্রিয়জনকে জড়িয়ে ধরার উপকারিতা

লাইফস্টাইল ডেস্ক : বিলিভ ইট অর নট- কাউকে ভালোবেসে জড়িয়ে ধরার রয়েছে অনেক উপকারিতা। এতে যেমন নিরাপদ অনুভূত হয়, একইসঙ্গে বাড়ে বিশ্বাস ও আস্থা। জড়িয়ে ধরলে বৃদ্ধি পায় মানসিক শান্তি; কমে অস্থিরতা।

ভালোবাসার চূড়ান্ত বহিঃপ্রকাশ হলো জড়িয়ে ধরা। প্রিয়জনকে জড়িয়ে ধরার স্বাস্থ্যগত উপকারিতাও রয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, এতে মানসিক প্রশান্তি মেলে। যা রক্তচাপ কমাতে সহায়তা করে। প্রিয়জনের ত্বকের স্পর্শে পেসিনিয়ান করপাসক্যালস কার্যকরী হয়ে ওঠে। পেসিনিয়ান করপাসক্যালস মস্তিষ্কের ভেগাস নার্ভকে সিগন্যাল পাঠায়। ফলে রক্তচাপ কমে।

যে কোনো ব্যথা থেকেও মুক্তি মেলে প্রিয়জনকে জড়িয়ে ধরলে। কারণ এরপর যে অক্সিটোসিন হরমোন নিঃসৃত হয় তাতে ইমিউন সিস্টেমের উন্নতি ঘটে, যা ব্যথা কমাতে ভূমিকা রাখে।

হার্টের সমস্যা প্রতিরোধ করে আলিঙ্গন। ইউনিভার্সিটি অব নর্থ ক্যারোলিনার চ্যাপল হিলের এক গবেষণায় বলা হয়েছে, প্রিয়জনকে জড়িয়ে ধরা ওষুধের মতো কাজ করে। প্রতি মিনিটে হার্টের গতিবেগ বাড়িয়ে তোলে অন্তত ১০ বিট। এতে হৃদরোগের আশঙ্কা কমে যায়।

এতো গেল শারীরিক দিক, মনেও এটি ছায়া ফেলে। আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে তুলে অকারণে ভয় পাওয়া কমিয়ে দেয়। যে কারণে আলিঙ্গনকে বলা হয়- জাদুকাঠির ছোঁয়া।

যাকে হৃদয় আপন ভাবে, তাকে ভালোবাসার বাহুডোরে বেঁধে ফেলাতেই প্রেমের সার্থকতা। তাই আর দেরি কেন? যাকে বা যাদের ভালোবাসেন, তাকে বা তাদের বিনা সংকোচে আজ জড়িয়ে ধরুন। বুঝিয়ে দিন, আপনি কতটা ভালোবাসেন তাদের। এক্ষেত্রে অবশ্য আপনার স্পর্শই বুঝিয়ে দেবে আপনি কতটা বিশ্বস্ত। আপনার জড়িয়ে ধরার কায়দাই বুঝিয়ে দেবে আপনি তাকে কতটা ভালোবাসেন।

তবে যিনি আপনার আলিঙ্গন হাসি মুখে গ্রহণ করতে প্রস্তুত, কেবল তার সঙ্গেই নিরাপদে, নির্ভয়ে পালন করুন ‘হাগ ডে’। নইলে হিতে বিপরীত হতে পারে!

আজকের প্রশ্ন

পুরো ঢাকায় ‘অঘোষিত কারফিউ’ চলছে। সরকার জনগণকে জিম্মি করে জনগণকে বাদ দিয়ে বিদেশি অতিথিদের নিয়ে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে ব্যস্ত। ফখরুলের এক মন্তব্যের সঙ্গে আপনি কি একমত?