শিরোনাম :
ড্রেনে পড়ে নিখোঁজের ৫ ঘণ্টা পর কলেজছাত্রীর মরদেহ উদ্ধার বিশ্বে করোনায় ফের বাড়লো সংক্রমণ-মৃত্যু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন আজ দেশের মর্যাদা রক্ষায় বন্ধ হচ্ছে পুরাতন পোশাক আমদানি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে স্বাস্থ্যবিধি মানার নির্দেশ রাষ্ট্রপতির এবার ই-কমার্সের লাগাম টানতে কারিগরি কমিটি এ সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচন নয়: মির্জা আব্বাস আবারও সাংবিধানিক সংকট সৃষ্টির চেষ্টা করছে বিএনপি : তাজুল ইসলাম বাংলাদেশে করোনায় আরও ২৫ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ১,২১২ দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ২ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ২১৪ রাজধানীতে বাসায় ঢাবি শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ মিয়ানমারে বিমান হামলা, ব্যাপক সংঘর্ষ নির্বাচনে প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে প্রেমের ফাঁদে ফেলে নারীকে হত্যা জেলেদের জন্য বরাদ্দ ১১ হাজার ১১৯ মেট্রিক টন চাল দেশে দুর্নীতি রয়েছে : পরিকল্পনামন্ত্রী

আফগানিস্তানে খাদ্য সংকট চরমে

  • রবিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আফগানিস্তানে চরম ক্ষুধার পরিস্থিতি বিস্তৃত হচ্ছে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি। শিশুরা যাতে অভুক্ত অবস্থায় না পড়ে, কিছু যেন খেতে পায় সে জন্য বহু পরিবার চরম কিছু পদক্ষেপ নিচ্ছে।

আফগানিস্তানের ৩৪টি প্রদেশের সব কটিতে ২১ আগস্ট থেকে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত টেলিফোনে নেওয়া জরিপে দেখা গেছে ৯৩ শতাংশ পরিবারের কাছে যথেষ্ট খাদ্য নেই।

বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির উপ-আঞ্চলিক পরিচালক অ্যানথিয়া ওয়েব বলছেন, বহু পরিবারই চরম বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে এবং বেঁচে থাকার জন্য নেতিবাচক কিছু পদক্ষেপ নিচ্ছে।

ওয়েব বলছেন, এসব পদক্ষেপের মধ্যে রয়েছে এক বেলা অভুক্ত থাকা, বড়দের খাবার না দিয়ে শিশুদের খাবার দেওয়া কিংবা খাদ্যের পরিমাণ কমিয়ে আনা। সুতরাং এখন চারটি আফগান পরিবারের মধ্যে তিনটি পরিবার সবগুলো না হলেও অন্তত একটি পদক্ষেপ নিচ্ছে।

১৫ আগস্ট তালিবান জঙ্গিরা আফগানিস্তান দখল করার আগে থেকেই সেখানে ব্যাপক খাদ্য সংকট ছিল। ১৭ জুন টেলিফোনে করা বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির জরিপে দেখা গেছে ৮১ শতাংশ পরিবার খাদ্য সংকটের মধ্যে ছিল। ১৫ আগস্ট আফগান সরকারের পতন ও তালিবানের কাবুল দখলের পর জরিপে দেখা গেছে, এই পরিস্থিতির মারাত্মক অবনতি ঘটেছে।

বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি জানাচ্ছে, ১ কোটি ৪০ লাখ লোক ক্ষুধার্ত। যাদের মধ্যে ২০ লাখ শিশু অপুষ্টিতে ভুগছে এবং জীবন রক্ষার জন্য তাদের বিশেষ পুষ্টিকর খাদ্যের প্রয়োজন। দেশটির অর্থনীতি ভেঙে পড়েছে। লোকজন বেকার হয়ে পড়েছেন। তাদের খাদ্য কেনারও পয়সা নেই।

ওয়েব বলেন, এখনকার প্রধান উদ্বেগ হচ্ছে শীত আসার আগেই লাখ লাখ লোকের খাদ্যের ব্যবস্থা করা। আফগানিস্তানের রাস্তাঘাটগুলো তুষারে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ার আগেই সেখানকার জনগণকে এই জীবান রক্ষাকারী সহায়তা দেওয়াটা এখন যেন সময়ের সঙ্গে প্রতিযোগিতার বিষয়।

ওয়েব বলেন, নভেম্বর মাসের মধ্যেই প্রতি মাসে আমাদের ৯০ লাখ লোকের কাছে খাদ্য পৌঁছে দিতে হবে, যদি আমরা বছরের শেষ নাগাদ ১ কোটি ৪০ লাখ লোককে খাদ্য পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্য ঠিক রাখতে চাই। আমরা ২০ কোটি ডলারের জন্য আবেদন করেছি এবং বেশ কিছু দেশ সাহায্যের প্রস্তাব নিয়ে এগিয়ে এসেছে। তবে অক্টোবর মাস নাগাদ খাদ্য মজুদ শেষ হওয়ায় আমরা আক্ষরিক অর্থেই ভিক্ষা চাইছি।

বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি এ বছর ৪০ লাখ আফগান নাগরিককে সাহায্য করতে পেরেছে। ওয়েব বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সহায়তায় বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি, বেশি দেরি হওয়ার আগেই খাদ্য কিনে গুরুত্বপূর্ণ জায়গাগুলোতে খাদ্য পরিবহনের ব্যবস্থা করতে পারবে।

খবর ভয়েস অব আমেরিকা

 

সংবাটি শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খরব
© Copyright © 2017 - 2021 Times of Bangla, All Rights Reserved